আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

যুক্তরাষ্ট্রে সপ্তাহান্তে ৪টি গুলি বর্ষণের ঘটনায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত এবং দুই ডজনেরও বেশি আহত হয়েছে। 
বন্দুক হামলায় ঘন ঘন হত্যাকা-ের প্রেক্ষিতে দেশটির বন্দুক আইন সংস্কার করার জোর দাবি জানানো হচ্ছে।  খবর এএফপি’র।
টেনেসি রাজ্যের  চ্যাটানুগা এলাকায় রোববার সহিংস হামলায় ১৪ জন গুলিবিদ্ধ এবং ২ জন নিহত হয়েছে। এছাড়া, ঘটনাস্থল থেকে ভয়ে পালাতে গিয়ে যানবাহনের ধাক্কা লেগে একজন মারা গেছে এবং দুইজন আহত হয়েছে। পুলিশ প্রধান সেলেস্ট মারফি জানিয়েছেন, আহতদের কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর। ভোরের আগে একটি নাইট ক্লাবের কাছে এ ঘটনা ঘটে।
শনিবার ফিলাডেলফিয়ায় একটি জনপ্রিয় সাউথ স্ট্রিট নাইটলাইফ এলাকায় ভিড়ের উপর একাধিক লোক গুলি চালালে দুই পুরুষ ও এক নারী নিহত হন। ফিলাডেলফিয়ার পুলিশ কমিশনার ড্যানিয়েল আউটল’ বলেছেন, ঘটনায় নিহত দুই ব্যক্তির ঝগড়ায় জড়িয়ে পড়া গুলি বর্ষনের কারণ হতে পারে। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, অন্য দু’জন ছিল “নিরীহ পথচারী।”
এমলাইভ ডট কম এবং উইওয়াইই টেলিভিশন পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, মিশিগানের সাগিনাওয়ে এলাকায় রোববার গুলিবর্ষনের ঘটনায় ৩ জন নিহত এবং ২ জন আহত হয়েছে।
পুলিশ এক বিবৃতিতে বলেছে, সাউথ ক্যারোলিনার ক্ল্যারেন্ডন কাউন্টিতে শনিবার একটি গ্র্যাজুয়েশন পার্টিতে বন্দুকধারীর গুলিতে পাঁচজন কিশোর ও একজন ১২ বছর বয়সীসহ সাতজন আহত এবং একজন প্রাপ্তবয়স্ক নিহত হয়েছে। 
আমেরিকায় বন্দুক হামলা সাধারণ ঘটনা, কিন্তু নিউইয়র্কের বাফেলোতে একটি মুদি দোকানে এবং টেক্সাসের উভালদে এলাকার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সাম্প্রতিক গুলিবর্ষনের ঘটনায় ১০ এবং ২১ জন নিহত  হওয়ার ঘটনা ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টির প্রেক্ষাপটে পদক্ষেপ গ্রহন অত্যাবশ্যক হয়ে পড়েছে। 
 টেক্সাস এবং নিউইয়র্কে গুলি বর্ষনের ঘটনা ছাড়াও, সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলিতে ওকলাহোমার একটি হাসপাতাল এবং ক্যালিফোর্নিয়ার একটি চার্চে বন্দুক হামলা হয়েছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত সপ্তাহে বন্দুক নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়নের আহ্বান জানিয়েছেন। রোববার তিনি আধা-স্বয়ংক্রিয় রাইফেলের উপর বিধিনিষেধের জন্য তার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করেন।
তিনি টুইট করেছেন, ” আমরা যদি অস্ত্র নিষিদ্ধ করতে না পারি, তাহলে আমাদের অন্ততপক্ষে অস্ত্র কেনার বয়স বাড়িয়ে ২১ করতে হবে”।
রোববার প্রকাশিত একটি সিবিএস নিউজ/ইউগভ জরিপে জানা গেছে, ৬২ শতাংশ আমেরিকান আধা-স্বয়ংক্রিয় রাইফেলের উপর দেশব্যাপী নিষেধাজ্ঞার পক্ষে। 
যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক সহিংসতায় ২০২২ সালে এ পর্যন্ত ১৮,০০০ জনের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে, যাদের মধ্যে প্রায় ১০ হাজার ৩০০ জন আত্মহত্যা করেছে।