নিজস্ব প্রতিবেদক-

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির পৃষ্ঠপোষকতায়, তেজগাঁও কলেজ থিয়েটার অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজের প্রযোজনায় মঞ্চে আসছে যাত্রাপালা ‘রাজিয়া সুলতানা’। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারী থেকে ২রা মার্চ পর্যন্ত তেজগাঁও কলেজ প্রিন্সিপাল আব্দুর রশীদ অডিটোরিয়ামে তিন দিন ব্যাপি এ যাত্রাপালা মঞ্চায়িত হবে। উৎসবটি ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় উদ্বোধন করবেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান, এম পি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ ঘোষ, নাট্যজন লিয়াকত আলী লাকী, অধ্যাপক ড. রশীদ হারুন, অধ্যাপক ওয়াহিদা মল্লিক জলি, অধ্যাপক রহমত আলী, চলচ্চিত্রকার গিয়াস উদ্দিন সেলিম, উপাধ্যক্ষ প্রফেসর আঞ্জুমান আরা। আরও আছেন মিলন কান্তি দে, প্রাণ রায় ও কাজী নওশাবা আহমেদ। অনুষ্ঠানকে ঘিরে এখন চলছে শেষ মুহূর্তের মহড়া। উপমহাদেশের প্রথম প্রগতিশীল নারী শাসক দিল্লি সালতানাত এর সুলতান শামসুদ্দিন ইলতুৎমিশ কন্যা রাজিয়া সুলতানা এর ক্ষমতায় আরোহন, তৎকালীন রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট, ধর্মীয় গোঁড়ামী, সামাজিকভাবে নারীদের দূর্বল জ্ঞান করা, সর্বোপরি তৎকালীন প্রেক্ষাপট তুলে ধরা হবে। এটি মূলত একটি ঐতিহাসিক যাত্রাপালা। নাটকটিতে অভিনয় করবেন- নওরীন সাজ্জাদ (রাজিয়া সুলতান), সাদমান সাঈদ (সুলতান ইলতুৎমিশ), লতা সমদ্দার (তুরকান খাতুন), সানজিদা আক্তার (শাহী-তার্কান), মোঃ ইবনে সাকিব/ হাদি আকাশ (রুকনউদ্দিন ফিরোজ), আতিকুল ইসলাম (রিয়াজউদ্দিন খান), জিনিয়া আহমেদ ইশা (দিলরুবা), মোঃ জাহিদুল ইসলাম (ইদ্দিল হামযা), সৈয়দ মুহাম্মদ জুবায়ের (মালিক আলতুনিয়া), মোঃ নাহিদ পারভেজ (নাসিরউদ্দিন মাহমুদ ও সিদি জামালউদ্দিন ইয়াকুত), মোঃ তানভীর জামান (যুবরাজ জালালউদ্দিন, ওয়াসিয়তনামা লেখক ও রাজকীয় ইমাম), রাইসুল ইসলাম রোমান (কবীর খা), মারুফা আক্তার মিম (মেহনাজ খাতুন), মোঃ আব্দুল বারী (প্রতিহারী), শেখ সায়েম হোসাইন (প্রতিহারী), জাবের ইকবাল (প্রতিহারী), লেবিয় ম্রং (ঘাতক), এম সাইফুর রহমান (প্রহরী), ফজলে রাব্বী (প্রহরী)। পালাটি রচনা করেছেন ড. জাহারাবি রিপন, নির্দেশনা দিয়েছেন আতিকুল ইসলাম, সৈয়দ মুহাম্মদ জুবায়ের। তত্ত্বাবধায়ন করেছেন তেজগাঁও কলেজের প্রিন্সিপাল আব্দুর রশীদ, নির্মান ও মঞ্চায়ন নির্বাহী উপাধ্যক্ষ মোঃ হারুন অর রশীদ । যাত্রাপালার মঞ্চ ও সঙ্গীত পরিকল্পনা- সৈয়দ মুহাম্মদ জুবায়ের, আলোক পরিকল্পনা- আতিকুল ইসলাম, পোশাক এবং দ্রব্যসামগ্রী পরিকল্পনা- নওরীন সাজ্জাদ, রূপসজ্জা- ড. লতা সমদ্দার। এছাড়াও সংলাপ ও কাহিনী সম্পাদনা- সৈয়দ মুহাম্মদ জুবায়ের ও আতিকুল ইসলাম, স্টেজ ম্যানেজার- মেহেদী ও মিম।